Categories

  • Categories
  • SPORTS
  • T-Shirt


প্রতিষ্ঠান পরিচিতি


কোম্পানীর নাম        - ওয়ার্ল্ড বাজার বিডি

ট্রেড লাইসেন্স নং    - ০৫-৪৮১০৪

রেজিস্ট্রার  নং         - ০৪

রেজিস্ট্রেশন তারিখ    - ০৯ জুলাই, ২০১৭ইং

টি আই এন নং        -৬৩৪১৭৭৫৫৬৮৯০

প্রতিষ্ঠাকাল        - ১লা জানুয়ারী, ২০১৮ইং

হট লাইন        - ০১৬৩৬-৬৯৩২৫০

             ০১৭৯৫-৫৯০৯২৬

             ০১৮৭৭-১৩৭৫৩৮

             ০১৯৬৮-৪১৮৪৪৬

 

কোম্পানীর উদ্দেশ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা    

কোম্পানীর উদ্দেশ্য শুধু ব্যবসা করা না। কোম্পানীর প্রধান উদ্দেশ্য হলো ছাত্র/বেকার সমাজকে কর্মসংস্থান মন্ত্রে অনুপ্রাণিত করিয়ে  আত্ম-কর্মসংস্থানে ব্রত করা। দেশের ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে অবদান রাখা। দুঃস্থ-মানব সেবাই এগিয়ে আসা। এতিম খানা স্থাপন ও বয়স্কদের  জন্য রাত্রিকালীন স্কুল খুলে তাহাদেরকে বিনা পয়সায় শিক্ষাদান করা হবে। বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জেলা ও থানায় ওয়ার্ল্ড বাজার বিডির শাখা-অফিস স্থাপন করা হবে। দেশের আনাচে-কানাচে মানুষদের কাছে ওয়ার্ল্ড বাজার বিডির সেবা পৌঁছিয়ে দেওয়া হবে।

                   

একজন সফল ব্যক্তি ও ব্যর্থ ব্যক্তির মধ্যে পার্থক্য

সফল ব্যক্তি

ব্যর্থ ব্যক্তি

সর্বদা ইতিবাচক চিন্তা করেন

বিশ্বাসকে গুরুত্ব দেন

সর্বদা দায়িত্ব নিতে চান

সর্বদা কাজের মধ্যে নিমজ্জিত থাকেন

আত্ম পরিচয়ে নিজেকে পরিচিত করেন

সর্বদা সমাধানের পথ দেখান

প্রতিটি সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেন

কঠিন কিছুর সম্ভাব্য সমস্যার সমাধান দিতে পারেন   

সর্বদা সমস্যার কারন খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন

সর্বোচ্চ চেষ্টা করে থাকেন

নিজের ভুল বুঝতে পারেন  

নিজেকে শিক্ষানবিশ মনে করেন

‘‘ভুল’’ করলে স্বীকার করেন ‘‘ভুলতা আমারই’’

বিবেচনা করে কথা বলেন

সর্বদা কাজের জন্য পরিকল্পনা করেন

কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত লেগে থাকেন

কঠিন তর্কে সহজ ভাষা ব্যবহার করেন

সর্বদা নেতিবাচক চিন্তা করেন

বাস্তবতার দোহাই দেন

দায়িত্ব না নিয়ে অজুহাত দেখান

সর্বদা ক্ষমা ছেয়ে গুতিয়ে থাকেন

অন্যের পরিচয়ে নিজেকে পরিচিত করেন

সর্বদা সমস্যার কথা ভাবেন

প্রতিটি সমাধানের সমস্যা খুঁজে বেরান

সম্ভাব্য কিছুকেও কঠিন মনে করেন

 

সর্বদা সমস্যার জন্য অন্যকে দায়ী করেন

অল্প চেষ্টাকে যথেষ্ট মনে করেন

অন্যের ভুল ধরতেই ব্যস্ত থাকেন

নিজেকে সবজান্তা মনে করেন

ভুল করলে বলেন “এটা আমার দোষ নয়”

যা মনে আসে তাই বলেন

সর্বদা অর্থের জন্য ফন্দি আঁটেন

মাঝপথে কাজ ফেলে পালিয়ে যান

সহজ বিতর্কে কঠিন  ভাষা ব্যবহার করেন

 

 

 

পণ্য বিক্রি নিশ্চিতকরন  

 

আপনার ফলো-আপ সঠিক হলে পণ্য বিক্রি করা সময়ের ব্যাপার মাত্র। একজন ব্যক্তি দুইটি পদ্ধতিতে পণ্য ক্রয় করতে পারেন-(ক) শুধু ক্রেতা হিসেবে (খ) ক্রেতা-মেম্বার হিসেবে

(ক) ক্রেতা হিসেবে কেউ পণ্য কিনতে চাইলে,

(১) ক্রেতা-মেম্বার এর জন্য চাপ প্রয়োগ করবেন না।(২) পণ্যটি তার হাতে ঝামেলামুক্তভাবে পৌছাতে সহযোগিতা করুন।(৩) পণ্যটি ব্যবহার করতে না জানলে সহযোগিতা করুন ও প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন।

(খ) ক্রেতা-মেম্বার হিসেবে কেউ পণ্য কিনতে চাইলে,

(১) নিয়মঅনুযায়ী তার আবেদনপত্র পুরন করুন।(২) ক্রেতা-মেম্বার সহায়ক গাইডসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপকরন দেয়া।(৩) “আই ডি কার্ড ফরম” পূরণে সহযোগিতা করুন।(৪) প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ আমন্ত্রন জানান। (৫) সাধারণ ক্রেতার ক্ষেত্রে যে ধরনের সেবা প্রদান করতে হবে-তার ক্ষেত্রে তার চেয়ে বেশি সেবা প্রদান করতে হবে।

মনে রাকবেন, পণ্য বিক্রিই শেষ কথা নয়-পণ্যটি ক্রেতার চাহিদা মতো হলো কিনা- তাই শেষ কথা।  

পরিচর্যা ও তদারকি করা

বীজ বপন করলেই যেমন আপনি ফলের আশা করতে পারেন না-তেমনি একজনকে ক্রেতা বা মেম্বার–করলেই আপনি আশানুরুপ ফল লাভ করতে পারবেন না। এই জন্য যথাযথ পরিচর্যা দরকার। আপনার ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে ম্যানেজার এবং মার্কেটিং অফিসার যদি দক্ষ হয়-আপনার ব্যবসা নিয়ে টেনশনের কোনো কারণ নেয়। ঠিক তেমনি পরিচর্যার মাধ্যমে আপনার ডাউনলাইন ক্রেতা-মেম্বারদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে এবং তদারকির মাধ্যমে অগ্রসরের হতে সহযোগিতা করতে হবে।

(১) ক্রেতা-মেম্বারদের ক্ষেত্রে সফল ব্যক্তিদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে, (২) ক্রেতা-মেম্বাররা প্রত্যেক দিন অফিসে আসছেন কিনা এবং মার্কেটিং প্রশিক্ষনে অংশ নিছেন কিনা এই ব্যাপারে খোঁজ নিতে হবে,(৩) নতুন ক্রেতাকে অফিস নিয়ে আসলে প্লান প্রদর্শন ও প্রশ্নোত্তর পর্বে সহযোগিতা করবে,(৪) ফলো-আপের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করতে হবে,(৫) টিম মিটিং-এর ব্যাপারে অবহিত করতে হবে এবং হালনাগাদ তথ্য প্রদান করতে হবে, (৬) মনে রাখতে হবে-আজকের নতুন ক্রেতা-মেম্বারই আগামিতে কোম্পানির প্রোজেক্ট শেয়ারহোল্ডার।                

         

 

টিম মিটিং

 

এই ব্যবসায় সফল হতে হলে টিম মিটিং অত্যাবশ্যকীয়। আপনার কোম্পানীতে ২ (দুই) জন ক্রেতা-মেম্বার হলেই টিম মিটিং শুরু করবেন। টিম মিটিং আপনার জন্য কেন জরুরি-

(১) টিমকে উৎসাহিত করার জন্য,

(২) টিমের সমস্যা সমাধানের জন্য,

(৩) টিমের বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নেওয়ার জন্য,

(৪) টিমের ঐক্য সৃষ্টির জন্য,

(৫) টিমের সদস্যদের মাঝে ভালবাসা ও বন্ধুত্ত সৃষ্টির জন্য।

প্রতি সপ্তাহে একটি নির্দিষ্ট দিন ও সময়ে টিম মিটিং করবেন যা পূর্বে থেকেই নির্ধারিত থাকবে। প্রত্যেকেই তাদের সমস্যাগুলো আলোচনা করবেন এবং সমন্বিত ভাবে সমাধান করবেন। টিম বড় হয়ে গেলে আপনার ক্রেতা-মেম্বারকে ডাউন লাইনকে অনুরূপ প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে বলবেন। মনে রাখবেন, এই ব্যবসাটির মূলমন্ত্র হল টিমওয়ার্ক।

আর টিমওয়ার্ক মানে কি-জানেন তো...?